News

Biman News

                                          

 

আজ ২৬ মে, ২০১৯ রোজ রবিবার বিমান প্রধান কার্যালয় বলাকায় গত ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের দুবাইগামী ফ্লাইট বিজি-১৪৭ এয়ারক্রাফ্টের ছিনতাই চেষ্টা নস্যাতে সংশ্লিষ্ট ককপিট ও কেবিন ক্রুদের সাহসিকতা ও বীরত্বের জন্য সম্মাননা দেয়া হয়।এছাড়া একই অনুষ্ঠানে বিমান প্রধান কার্যালয় ডাটা সেন্টারে অগ্নি নির্বাপনে সাহসিকতাপূর্ণ অবদানের জন্য বিমানের দু’জন আইটি কর্মীকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও ক্যাপ্টেন ফারহাত হাসান জামিল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ক্রুদের দক্ষতা ও দূরদর্শীতার জন্য সকলকে ফুলেল শুভেচ্ছা, প্রসংশা পত্র ও ক্রেস্ট প্রদান করেন। এ সময় বিমানের পরিচালক প্রশাসন জিয়াউদ্দীন আহমেদ, পরিচালক প্রকিউরমেন্ট এ্যান্ড লজিস্টিক সার্পোট মোঃ মমিনুল ইসলাম, পরিচালক পরিকল্পনা, বিক্রয় ও বিপণন কমোডর মাহবুব জাহান খাঁন, পরিচালক গ্রাহক সেবা আতিক সোবহান এবং চিফ ফাইনান্সিয়াল অফিসার বিনিত সুদ, মহাব্যবস্থাপক জনসংযোগ শাকিল মেরাজ সহ বিমানের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও তাঁর বক্তব্যে ঐ দিনের ফ্লাইটের ক্রুদের সাহসিকতার প্রশংসা করেন ও তাদের এই দক্ষতা ও সাহসিকতা ধরে রাখার আহ্বান জানান। তিনি বলেন ক্রুদের এই ত্যাগ ও দক্ষতা ক্রু-সহ বিমানের সকলকে অনুপ্রানিত করবে। সম্মাননা যারা পেলেন, ক্যাপ্টেন মোঃ গোলাম শাফি, ফাস্ট অফিসার মুনতাসির মাহবুব, পার্সার শাফিকা নাসিম নিম্মি, জুনিয়র পার্সার হোসনেয়ারা, ফ্লাইট স্টুয়ার্ডেস শরিফা বেগম রুমা, ফ্লাইট স্টুয়ার্ড সাহেদুজ্জামান সাগর, ফ্লাইট স্টুয়ার্ড মোঃ আব্দুস সাকুর মোজাহিদ, এ্যাসিটেন্ট সিস্টেম এ্যাডমিনিস্ট্রাক্টর তপু বডুয়া এবং সিনিয়র ডাটা প্রসেসিং এ্যাসিটেন্ট জহিরুল আলম চৌধুরী।

 

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারী ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাইগামী বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে একজন দুষ্কৃতিকারী। বিমানের পাইলট ও ক্রুদের বিচক্ষণতায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দরে ফ্লাইটটি জরুরী অবতরন করেন পাইলট। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর আট মিনিটের কমান্ডো অভিযানে ঘটনার সমাপিÍ ঘটে।