News

Biman News

                                                   

বিজি ১৩৫ চট্টগ্রাম থেকে রাত ০৮০০ ঘটিকায় ৪০০ জন যাত্রী নিয়ে বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর
ফ্লাইটে চট্টগ্রাম থেকে জেদ্দার উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার প্রাক্কলে হযরত শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আয়োজিত এক সংবাদ  সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহাব্যবস্থাপক জনসংযোগ জনাব শাকিল মেরাজ, ‍উপ-মহাব্যবস্থাপক প্রাইসিং সালাউদ্দিন আহমেদ, জেলা ব্যবস্থাপক চট্টগ্রাম সজল কান্তি বড়ুয়া এবং স্টেশন ব্যবস্থাপক গোলাম আজমীসহ বিমানের বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারগণ উপস্থিত ছিলেন।


বিমান ছাড়ার প্রাক্কলে দেশ ও জাতির  কল্যাণ কামনায় মোনাজাত করা হয় এবং বিমানের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও যাত্রীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন।

 

                                        চট্টগ্রাম থেকে জেদ্দা সাপ্তাহিক ৩য় ফ্লাইট  বিজি ১৩৫ এর শুভ উদ্বোধন

                                                        ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মহোদয়ের বক্তব্য

বিসমিল্লাহির  রাহমানির  রাহিম

 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর চট্টগ্রামদ-জেদ্দা সাপ্তাহিক ৩য় ফ্লাইটের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত আজকের এই প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠানে আগত দেশের বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কর্মরত সাংবাদিক বন্ধুগণ, সিভিল এভিয়েশন, ইমিগ্রেশন,কাষ্টমস, আইন শৃঙ্খলা প্রয়োগকারী সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ এবং বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কর্মরত আমার সহকর্মীবৃন্দ, আসসালামু আলাইকুম

 

সুধীবৃন্দ,

জাতীয় পতাকাবাহী সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সএর নেটওয়ার্ককে দ্বিতীয় বৃহত্তম স্টেশন বা হাব হলো চট্টগ্রাম । ১৯৭২ সালের ৪ঠা জানুয়ারি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর প্রতিষ্ঠার পরপরই চট্টগ্রামের সাথে ১৯৭২ সালের ০৭ই মার্চ ফ্লাইট অপারেশন এর মধ্য দিয়ে বিমানের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। বিগত ৪৬ বছরে অভ্যন্তরীণ অপারেশন শুরু করার পর ধীরে ধীরে এর পরিধি এবং ব্যাপ্তি বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের এভিয়েশন শিল্পের বিকাশটাই হয়েছে  বিমানের হাত ধরে। বর্তমানে চট্টগ্রাম থেকে বিমান প্রতি সপ্তাহে ১৭ টি আন্তর্জাতিক এবং ২৯ টি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট পরিচালনা করছে। আন্তর্জাতিক রুট গুলোর মধ্যে রয়েছে জেদ্দা, দুবাই, আবুধাবি, মাস্কট, দোহা এবং কোলকাতা। আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া সামার শিডিউলে সাপ্তাহিক এ ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে আন্তর্জাতিক রুটে ১৮ টি এবং অভ্যন্তরীণ রুটে ৩২টি ফ্লাইটে উন্নীত হল।

 

সুধীবৃন্দ,

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সমুহে প্রবাসী বাংলাদেশীদের মধ্যে একটা  উল্লেখ্যযোগ্য অংশ বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের বাসিন্দা। দেশের সাথে তাদের যোগাযোগ আরও সহজ ও স¦াচ্ছন্দ্যময় করতে বিমান চট্টগ্রাম থেকে জেদ্দা রুটে সপ্তাহে ০৩ টি, দুবাই রুটে ০৫ টি ,আবুধাবি রুটে ০৫টি,মাস্কট রুটে ০৪টি এবং দোহা রুটে ০১ টি ফ্লাইট পরিচালনা করছে। এছাড়া চট্টগ্রাম থেকে পর্যটক ও ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে কোলকাতা রুটে সপ্তাহে ০২ টি ফ্লাইট পরিচালনা করা হচ্ছে।

 

সুধীবৃন্দ,

চট্টগ্রাম দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের অন্যতম প্রাণ কেন্দ্র। চট্টগ্রামের সাথে রাজধানীর যোগাযোগ আরও সহজ, স্বাচ্ছন্দ্যময় এবং সাশ্রয়ী করে তুলতে বোয়িং ফ্লাইটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চট্টগ্রাম-ঢাকা রুটে ওয়ানওয়ে সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণ করেছে ট্যাক্স ও সারচার্জসহ ২০০০/- টাকা যা যেকোন এয়ারলাইন্সের তুলনায় সর্বনিম্ন। আমরা আশা করছি এই অফারের মাধ্যমে আমাদের বর্তমান গ্রাহকের পাশাপাশি নতুন কাষ্টমার বেজ তৈরী হবে এবং দেশের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালনায় ব্যবসায়িক যোগাযোগ-এ নতুন মাত্রা যুক্ত হবে।

 

আপনারা আরও জেনে খুশি হবেন যে, বাংলাদেশের পর্যটন শিল্প আজ ক্রমবিদকাশমান। পর্যটনের সাথে কানেকটিভিটি ওতোপ্রতোভাবে জড়িত দেশের অন্যতম পর্যটন গন্তব্য কক্সবাজার এর সাথে চট্টগ্রামের আকাশপথে যোগাযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিমান আজ থেকে চালু হওয়া সামার শিডিউলে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে সাপ্তাহিক ০৩ টি ফ্লাইট চালুর ঘোষনা করছে। এরুটে ভাড়া ট্যাক্স ও সারচার্জসহ ১৫০০/- টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতি সপ্তাহে শনি,সোম ও বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম থেকে ফ্লাইট সকাল ০৮:১৫ মিনিটে ছেড়ে যাবে এবং ০৮:৪০ মিনিটে কক্সবাজার পৌছবে।

 

হজ্জ বিমানের একটি গুরুত্বপূর্ণ অপারেশন। চট্টগ্রাম অঞ্চলের সম্মানিত হাজী সাহেবানদের জন্য আমরা প্রতি বছরই চট্টগ্রাম থেকে সরাসরি ডেডিকেটেট হজ্জ ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকি এবং গত বছর প্রথমবারের মত চট্টগ্রাম থেকে জেদ্দার পাশাপাশি সরাসরি মদিনাতেও ফ্লাইট পরিচালনা করা হয়েছে । গত বছর চট্টগ্রাম থেকে ১৪,০০০ ওমরাহ্ ও ১২৫৯৩ জন হজ্জ-যাত্রী পরিবহন করেছে বিমান। এবছর আমরা চট্টগাম থেকে হজ্জ ফ্লাইট বৃদ্ধি করার পাশাপাশি মদিনা ফ্লাইটও অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

 

বর্তমান বিমান বহরে সংযুক্ত ১২ টি উড়োজাহাজের মধ্যে ০৬ টি বোয়িং নিজস্ব অর্থায়নে কেনা উড়োজাহাজ। এবছর বহরে আরও যুক্ত হবে ০২টি বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার । এছাড়া হজ্জের সময় স্বাভাবিক শিডিউল অনুযায়ী ফ্লাইট পরিচালনার স্বার্থে আরও ০৪টি সুপরিসর উড়োজাহাজ স্বল্প মেয়াদী লীজে আনার সিদ্ধান্ত রয়েছে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স যাত্রীসেবার পাশাপাশি যাত্রীর নিরাপত্তার বিষয়টি সবোর্চ্চ গুরুত্ব অরোপ করে আসছে। আপনারা জেনে খুশি হবেন এবছর বিমান ৬ষ্ঠ বারের মতন ধারাবাহিকভাবে আয়াটা অপারেশন্স সেফটি অডিট  ওঙঝঅ অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। যা উন্নত নিরাপত্তার মান নির্দেশ করে। বাংলাদেশে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সই’ আয়োস (ওঙঝঅ) সনদপ্রাপ্ত একমাত্র এয়ারলাইন্স।

 

 দেশের ‘এল ডি সি’  থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে দেশের এভিয়েশন শিল্প বিকাশে বিমান যে নিরলস প্রচেষ্টা অব্যহত রেখেছে তাতে আপনাদের সহযোগিতা ও সমর্থন সব সময়ই কাম্য। আমরা আশা করি বিমান বাংলাদেশ এয়ালাইন্স জাতীয় পতাকাকে বুকে ধারণ করে তার ডানা দিগন্ত থেকে দিগন্তে বিস্তৃত করবে।

 

আজ ২৫ মার্চ ২০১৮, বিজি ১৩৫ ফ্লাইটের মাধ্যমে জেদ্দা থেকে বিমানের সাপ্তাহিক ৩য় ফ্লাইটের শুভ সূচনা ঘোষণা করছি।

 

আপনাদের সকলের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে আমি আমার বক্তব্য শেষ করছি।

 

 

(এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ)

ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স