News

Biman News

 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স যাত্রী সেবার মান উন্নয়ন কর্মসূচীর অংশ হিসেবে গ্রীষ্মকালীন শেড্যুলে অর্থাৎ ২৬ মার্চ, ২০১৭ হতে নন-ষ্টপ ঢাকা-লন্ডন-ঢাকা রুটে সম্মানিত বিজনেস ক্লাস যাত্রীদের জন্য বৈচিত্র্যময় সুস্বাদু খাবার ও ইনফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্ট এর ডালি নতুন করে সাজিয়েছে। এছাড়া ২৬ মার্চ ২০১৭ হতে সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইটসমুহে ডায়েবেটিক খাবার ও ছোট বাচ্চাদের জন্য কিডস্ ফুডের ব্যবস্থা থাকবে। উল্লেখ্য যাত্রীদেরকে টিকিট বুকিংএর সময়ই তা জানাতে হবে। গত ২৩ শে মার্চ রোজ বৃহস্পতিবার বিমান ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টার(বিএফসিসি)-এ এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ এ কর্মসুচীর শুভ উদ্বোধন করেন।

 

এখন থেকে বিমান, প্রতি ৩ মাস অন্তর অন্তর আন্তর্জাতিক সকল সেক্টরে সকল ফ্লাইটে যাত্রীদের পছন্দ ও সেবা দানের অভিনবত্ব এর বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে খাবার মেন্যু ও মিউজিক, মুভি, ভিডিও গেমস্ এর মত বিনোদনের বিষয়গুলো নতুন করে সাজাবে।

 

অনুষ্ঠানে বিমান ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও জনাব এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ বলেন, ‘‘বিমান তার সার্ভিসের প্রতিটি ক্ষেত্রে ব্যাপক পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে নানা রকম আকর্ষনীয় যাত্রী সেবাদানে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে’’।তিনি বলেন যে, এখন থেকে লন্ডন সেক্টরে বিমানের নন-ষ্টপ ফ্লাইটে বিজনেস ক্লাসের যাত্রীরা বিশ্বমানের যে কোন এয়ারলাইন্সের মত ‘এ লা কার্ট’ মেন্যুর বিচিত্র খাদ্য সম্ভার থেকে পছন্দ অনুযায়ী খাবার নির্বাচন করতে পারবেন।এ ছাড়া এই রুটে বিজনেস ক্লাস যাত্রীরা ‘অল ডে ডাইনিং’ সুবিধার আওতায় ফ্লাইট চলাকালীন যে কোন সময় চাহিদামত খাবার খেতে পারবেন। তিনি আরও বলেন, ‘‘শীঘ্রই সকল আন্তর্জাতিক রুটে পর্যায়ক্রমে এ সুবিধা চালু করা হবে’’। বিমান তার যাত্রীদের উন্নতমানের সেবা প্রদানের বিষয়ে অঙ্গীকারবদ্ধ এ সার্ভিস তারই প্রতিফলন।

 

বর্তমানে বিএফসিসি হতে বিমানসহ মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্স, ক্যাথে প্যাসেফিক, টার্কিস এয়ারলাইন্স ও ড্রাগন এয়ার খাবার সরবরাহ নিচ্ছে।এছাড়া বিএফসিসি হতে আরও ১৪ টি বিদেশী এয়ারলাইন্স ক্যাজুয়াল মিলসহ কেবিন ড্রেসিংএর সুবিধা নিচ্ছে। বিএফসিসি প্রতিদিন ৮,৫০০ মিল তৈরী করে থাকে। হজ্জ্বের সময় প্রতিদিন এ মিলের সংখ্যা দাড়ায় ১২,০০০ এ।

অনুষ্ঠানে পরিচালক গ্রাহকসেবা আতিক সোবহান বলেন,‘‘ বিমান বহরে এখন রয়েছে ব্র্যান্ডনিউ বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর ও বোয়িং ৭৩৭-৮০০ নিউ জেনারেশন এয়ারক্রাফট। অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় বিমান বহরের উড়োজাহাজগুলো এখন আধুনিক ও নবীন’’। এ সকল উড়োজাহাজে রয়েছে বিশ্বমানের ইনফ্লাইট এন্টারটেইনমেন্ট (IFE) এর ব্যবস্থা। এর মাধ্যমে যাত্রীরা ভ্রমণকালীন সময়ে স্ব স্ব পছন্দ অনুযায়ী  নাটক, সিনেমা, গান ও গেমস্ দেখার এবং উপভোগ করার সুযোগ পাচ্ছেন।IFE প্রযুক্তির বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় কোম্পানী রকওয়েল কলিন্স ও থেলাস বিমানের IFE সিস্টেম পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজে নিয়োজিত আছে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহাব্যবস্থাপক জনসংযোগ শাকিল মেরাজ ও উপ-মহাব্যবস্থাপক বিএফসিসি জামাল উদ্দিন তালুকদার সহ অন্যান্য উদ্ধর্তন কর্মকর্তা ।