News

Biman News

                                        

০৯ আগষ্ট, ২০১৭ , বুধবার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্রধান কার্যালয় বলাকায় দুপুর ১২:০০ বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মহোদয় এক সংবাদ সম্মেলনে হজ্জ সংক্রান্ত বিষয়ে এক প্রেস ব্রিফিং করেন। ব্রিফিং এ জানানো হয় যে, এ পর্যন্ত বিমানের ৫৪টি ডেডিকেটেড হজ্জ ফ্লাইট এবং ১৬টি শিডিউল ফ্লাইট পরিচালিত হয়েছে। বিমান এ পর্যন্ত ২৪,১১৫ জন হজ্জ-যাত্রীকে পরিবহন করেছে। পর্যাপ্ত যাত্রী না থাকায় বিমানের ১৯টি হজ্জ-ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। 

সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি কঠিন হলেও তা এখনো নিয়ন্ত্রণের বাইরে নয়। তিনি বলেন শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত সময়ে হজ্জ-ফ্লাইট চালু রাখাকে বিমান ব্যবস্থাপনা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে। এ পর্যন্ত বিমানের ক্যাপাসিটি লষ্ট হয়েছে ৯৮৮৭। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন ১৯টি ফ্লাইট বাতিল হওয়ার কারণে ৪০ কোটি টাকার রাজস্ব আয়ের সুযোগ হারিয়েছে বিমান। তিনি জানান বিমান সৌদি সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ১৪টি স্লট পেয়েছে। তবে সময়মতো উড়োজাহাজ প্রাপ্যতার প্রেক্ষিতে ৭টি স্লট ব্যবহার করা যাবে।

ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরো বলেন, সকল হজ্জ-যাত্রীকে সময়মতো জেদ্দা পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে তিনি আশাবাদী। তিনি বলেন, বিমান সাধারণ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান নয়, রাষ্ট্রয়াত্ত্ব প্রতিষ্ঠান তাই সমস্যার উত্তরণে বিমানসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে একযোগে চেষ্টা করতে হবে। 

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মার্কেটিং এন্ড সেলস এর পরিচালক মোঃ আলী আহসান, পরিচালক ফ্লাইট অপারেশন্স ক্যাপ্টেন ফরহাদ হাসান জামিল এবং মহাব্যবস্থাপক জনসংযোগ শাকিল মেরাজসহ অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ।